Discussion Lets discuss about our devices and softwares

  • Hello Guest ,

    *** রেজিস্ট্রেশন করার পর "Confirmation Email" না পেলে "Spam" ফোল্ডার চেক করুন। ***

  • বাংলাপিডিএফ এ নতুন করে রেজিস্ট্রেশন চালু হয়েছে। তবে এই ওয়েবসাইটের কোন মডারেটর বা আপলোডার যদি আপনার পরিচিত হয়, তাহলেই কেবল রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন। তাদের কাছ থেকে ইনভাইটেশন লিঙ্ক নিয়ে সেটা ব্যবহার করে রেজিস্ট্রেশন করা যাবে।
  • রেগুলার সেকশনে কেউ পূজাবার্ষিকী আর ঈদ সংখ্যা ৬ মাস হবার আগে শেয়ার করবেন না। এই বিষয়ে আমাদের নীতিমালা রয়েছে এখানেঃ https://banglapdf.net/threads/5127/"

sadaq

Moderator
Staff member
Moderator
Uploader
Premium Member
Sep 16, 2013
785
12,547
বাংলাদেশ
sadaqurrahman.com
Credits
39,249
আসুন প্রথমে বাংলাপিডিএফে আমার গল্প শুনিঃ
বাংলাপিডিএফ এ আমার অ্যাকাউন্ট অনেক পুরাতন, তবে আপলোড করা শুরু করেছি ২ বছরের মত। কেন আর কিভাবে সেটাই বলছি এখন। বাংলাপিডিএফ বই ডাউনলোডের জন্য আমার পছন্দের তালিকায় ছিল অনেক আগে থেকেই, এর প্রধান কারণ হল দুর্দান্ত কোয়ালিটির পিডিএফ। অহর, শ্যামল, রনি, শোভম এই নামগুলো ছিল আমার কাছে অতি পছন্দের, কেননা তাদের মাধ্যমেই অধিকাংশ ভালো কোয়ালিটির পিডিএফ তখন পেয়েছিলাম। এই সাইটে ডাউনলোডও তখন ছিল খুব সোজা, হয় ডাউনলোড লিঙ্ক সরাসরি দেওয়া থাকত নয়তো শুধু লাইক দিলেই লিঙ্ক পাওয়া যেত। তখন খেয়াল না করলেও অবশ্য পরে দেখলাম আমি যে বই এখান থেকে নিয়েছি তা অন্য অনেক জায়গায় রয়েছে, মানে কপি বা বলা উচিত চুরি হয়ে গিয়েছে। অনেক সফটকপি সংগ্রহে থাকায় বিপিতে আসা হত খুব কম।​
২০১৬ সালে বাসা বদল করে নতুন জায়গায় আসার পর ঈদের সময়ে ছুটিতে বাসায় আসলে বই পড়া ছাড়া আর তেমন কোন বিশেষ কাজ থাকত না। আবার এরও আগে আমি ইউনিভার্সিটিতে পড়ার জন্য চলে গেলে বাসা পরিবর্তন করার সময় নস্ট হতে পারে বা এমনিতেও রাখা বা সংরক্ষণের জন্য আম্মু আমার সব বই গ্রামের বাড়িতে সিন্দুকে রেখে দিয়ে আসে। এরপর আজ অবধি তা আর আনা হয়নি বিভিন্ন কারনে। তো বই বয়ে বাসায় আনার অভ্যাস ছিল না বলে বাসায় এসে সফটকপি পড়া শুরু করি। বেশ অনেকদিন বিরতিতে ২০১৯ এ হঠাত এভাবে একদিন পড়ার জন্য নতুন কিছু একটা খুজতে বিপিতে ঢুকে অবাক হয়ে গেলাম। অনেক কিছু পরিবর্তন হয়ে গেছে। চেহারা বদলের সাথে সবথেকে বড় সংযোজন ক্রেডিট সিস্টেম। কিছু বই ডাউনলোড করতে ভালো পরিমানে ক্রেডিট লাগবে যা আমার তখন ছিল না। কিছুক্ষণ ঘুরে বুঝলাম বই শেয়ার করা হচ্ছে ক্রেডিট অর্জনের সব থেকে ভালো উপায়। তখন আমি কিছুদিন আগে বাংলা ওসিআর করে কিছু কাজ করেছিলাম তাই কয়েকটা বই ওসিআর করে ইপাব করি, তবে পরিশ্রম হয় ভালোই (এখনো সেই সময় হাত দেওয়া কয়েকটা প্রজেক্ট অসমাপ্ত হয়ে পড়ে আছে)। আমার নিজের তখন ল্যাপটপ আর স্ক্যানার দুইটাই ছিল। স্ক্যানারটা অ্যাকাডেমিক কাজেই লাগত এবং ব্যবহার করতামও প্রচুর। কিন্তু স্ক্যান করার পর কিভাবে এত সুন্দর পিডিএফ বানানো যায় সেটা সম্পর্কে কোন ধারণা ছিল না। আর ছোটবেলায় আমার এক বন্ধুর মাধ্যমে স্ক্যানার ব্যবহার দেখেছিলাম, সে আমাকে কয়েকটি উন্মাদ স্ক্যান করে ইমেজ আকারে করে দিয়েছিল। ফটোশপে প্রতিটা পাতা এডিট করা যে ঝামেলার ছিল তা দেখে ওই ধারনা হয়ে ছিল যে এভাবে বই স্ক্যান করে এডিট করা অনেক কষ্টের। বিপিতে ঘুরতে ঘুরতে হঠাৎ একদিন নাজমুল ভাইয়ের একটা কমেন্টে দেখলাম স্ক্যান টেইলর নামে একটা সফটওয়্যার এর কথা। ডাউনলোড করে ব্যবহার বোঝার পর দেখলাম "আরে! এডিট করা তো অনেকটাই সহজ।" এরপর ঝামেলা হল স্ক্যান টেইলর থেকে আউটপুট আসে TIFF ফরমেটে তা যোগ করে পিডিএফ বানানো নিয়ে। TIFF থেকে JPG করতাম করতাম, সেগুলো আবার কম্প্রেস করে জোড়া দিয়ে পিডিএফ বানাতাম। কম্প্রেস করতাম কারন TIFF থেকে যে JPG ফাইল হত তা সরাসরি জোড়া দিলে যে ফাইল সাইজ হত তা বিশাল বড়। প্রথমে ফটোশপেই করতাম এই কাজ। আমার ফটোশপে অবশ্য এই ব্যাচ প্রসেস হত না। ফটোশপ থেকে কমান্ড দিলে অ্যাডোবের আরেকটা সফটওয়্যার (এখন আর সেটার নাম মনে নেই) দিয়ে কাজটা হত, কিন্তু সেটা ঝামেলা করত বলে বিকল্প খুজতে গিয়ে পেলাম Gimp এর একটা অ্যাড অন BIMP। সেটার ব্যবহারে মোটামুটি মানের কয়েকটা পিডিএফ বানাই। এভাবে কাজ কিছুটা কমলেও সময় লাগত অনেক, যেহেতু অনেকগুলো প্রসেস করতে হত।​

এরপর বইঘরের জন্য একটা ম্যাগাজিন পিডিএফ করি এভাবে। শোভম ভাই সেটা আবার এডিট করে সাইজ কমিয়ে দেন, সেই সাথে দুইটা টিপস দেন, তার একটা ছিল TIFF ফাইলগুলো অ্যাডোবে অ্যাক্রোব্যাট এডিটরে সরাসরি জোড়া দিলে ভালো কোয়ালিটির কিন্তু ছোট সাইজের পিডিএফ পাওয়া যায়। এবার দেখলাম- ব্যাপার তো আরো সহজ! দুই সফটওয়্যার দিয়েই কাজ শেষ। আরো পরে অবশ্য প্রয়োজনে প্রচ্ছদ কিছুটা এডিট করা শুরু করি ফটোশপে।​

কিছুদিন ধরে লকডাউনের কারনে যেখানে আটকে আছি সেখানে সাথে স্ক্যানার না থাকলেও একটা বই স্ক্যান করার খুব লোভ হচ্ছিল, আবার স্ক্যানারের কাছে যখন যেতে পারব তখন বইটা সাথে নিতে পারব না। তাই মোবাইলেই স্ক্যান করলাম। স্ক্যান টেইলরের একটা অপশন আছে (সেটা দিয়ে আকাবাকা লেখা সোজা করা যায়) তা ব্যবহার করে কিছুটা চেষ্টা করলাম তবে সেটার ব্যবহার তখনো ভালোভাবে বুঝে উঠতে পারিনি। তবু শেষমেশ মোটামুটি মানের পিডিএফ বানানো গেল, কিছু পাতা কয়েকবার করে ছবি তুলতে হয়েছিল মান মোটামুটি ভালো বানানোর জন্য- ওই অপশনটার ব্যবহার যদি পুরোপুরি শিখতে পারতাম তবে আরো সহজ হত ব্যপারটা। যাইহোক, এরপর সাইয়াম ভাই ব্যাক্তিগতভাবে কয়েকটা বই শেয়ার করেন আমার সাথে। সেগুলো সামান্য এডিট করি, ৫ বছরের মধ্যে প্রকাশিতগুলো আমি প্রিমিয়াম সেকশনে শেয়ার করব এমন কথাও হয়। সমস্যা হয় একটা বই নিয়ে, সেটা মোবাইলে স্ক্যান করা, লেখা পরিস্কার কিন্তু পেজ বাকার কারনে লাইন বাকা বেশ অনেক জায়গায়। স্ক্যান টেইলরের Dewarping অপশনটা আরো ভালোভাবে ব্যবহার শিখতে খুজতে খুজতে খোজ পেলাম Scan-Tailor-Experimental এডিশনের। সেটার ওই অপশনটা নিজে থেকেই অনেকটা নিখুত। আর ততক্ষনে আমি Dewarping এর রহস্য মোটামুটি বুঝে ফেলেছি। এবার অনেক ভালো মানের পিডিএফ হল মোবাইল স্ক্যান থেকেই। তার কাছ থেকে আরো কিছু স্ক্যান পেলাম এডিটের জন্য, এবার সমস্যা হল- এই এডিশনটা যেহেতু স্ট্যাবল কোন ভার্শন না সেজন্য ক্র‍্যাশ হতে লাগল বারবার। স্ক্যান টেইলরের ফোরামে তখন পেলাম Scan Tailor Advanced এর খোজ। এবার এটাতে আসলেই আরো অনেক অপশন পাচ্ছি।​

এর বাইরে একদিন বিপির টিউটোরিয়াল সেকশনে দেখলাম বিদেশি ভাষার কমিক্স কিভাবে অনুবাদ করা যায় সেটা নিয়ে একটা পোস্ট। আমার আর্চির কমিক্স অনেক পছন্দের, কিন্তু বাংলায় তা তেমন পাওয়া যায় না বলে ভাবলাম অনুবাদ করি নিজেই। ফটোশপে করতে গিয়ে বিভিন্ন ঝামেলায় আর তা করা হয়ে ওঠেনি। অনুবাদ কমিক্সের জন্য আমি একটা ওয়েবসাইটে মাঝে মাঝে ঢু মারি (আরো কয়েকটাতে যেতাম আগে, তবে সেগুলো আর নতুন কিছু করছে না), সেটাতে ঘুরতে ঘুরতে হঠাৎ কিছুদিন আগে মনে হল আবার চেষ্টা করি। এবার ফটোশপে মোছামুছির কাজ করে লেখার জন্য পাওয়ার-পয়েণ্ট ব্যবহার করলাম, কেননা সেটা আমার কাছে অনেক সহজ লাগে। এভাবে এখন পর্যন্ত দুইটা কমিক্স অনুবাদ করে ফেলেছি, একটা বিপিতে শেয়ারও করেছি।​

এই হল আমার গল্প, যদি শুধু ইপাব বানানো দিয়েই এই গল্প শেষ হত তাহলে হয়ত আর বেশি বই আমার হাতে সফটকপিতে পরিনত হত না। শুধুমাত্র স্ক্যান টেইলরের কথা জানতে পারার কারনে যে স্ক্যান শুরু হয়েছিল তার ফলে এখানে দেড়শর মত পোস্ট শেয়ার করে ফেলেছি ইতিমধ্যে, আর এর থেকে আরো বেশী স্ক্যান করা বই আছে আমার, মাঝে মাঝে যেটা মন চায় এডিট করে শেয়ার করি। অনেক আগে থেকেই একটানা স্ক্যান করার অভিজ্ঞতা থাকায়, যখন মুভি বা সিরিজ দেখি তার সাথেই স্ক্যান করে ফেলতে পারি এখন, আর গত বছর লকডাউনে অনেক সময় পেয়েছিলাম স্ক্যান করার জন্য।​

কিছুদিন আগে আইসু ভাইয়ের একটা হেল্প এন্ড রিকোয়েস্ট পোস্ট দেখে হঠাৎ মাথায় আসে, আমরা যারা স্ক্যান করি তারা যদি নিজেদের ব্যবহার করা যন্ত্রপাতি আর সফটওয়্যারগুলো কি কি তা শেয়ার করি তবে কারো কাজে লেগেও যেতে পারে আর সেইসাথে হয়তো আমার মত করে নতুনভাবে কেউ আগ্রহী হতেও পারে।​

আমি আমার নিজের ব্যবহার করা ডিভাইস আর সফটওয়্যারগুলোর তালিকা দিচ্ছি (সেইসাথে ব্যবহৃত ওয়েবসাইট সমুহও), আর সবার কাছে অনুরোধ থাকবে আপনাদের গুলোও শেয়ার করুন। সেই সাথে একে অন্যের জন্য পরামর্শ বিনিময়ও করা যেতে পারে এই থ্রেডে।

স্ক্যানঃ
স্ক্যানার-
Please, Log in or Register to view URLs content!
স্ক্যানিং সফটওয়্যার-
Please, Log in or Register to view URLs content!
মোবাইল স্ক্যান- মোবাইলের ক্যামেরা (১৩ মেগাপিক্সেল) দিয়ে সরাসরি ক্যামেরা অ্যাপে। শুধু সেটআপ এমনভাবে করে নেই যেন মোবাইল একজায়গায় স্থির থাকে আর একই ফ্রেমে পাতাগুলো উলটে যেতে থাকি আর ছবি তুলতে থাকি। খুব আহামরি সেটাপ নয় তাই বলে, কয়েকটা বড় বই দিয়ে উচু করে নিয়ে একটু বাকা করে মোবাইল রাখি। বিশেষ কোন যন্ত্রপাতি নেই আপাতত এই কাজের জন্য।​

স্ক্যান করা ফাইল থেকে এডিটঃ
Please, Log in or Register to view URLs content!
- মূল স্ক্যান ফাইলগুলো থেকে ফাইনাল ইমেজ বানানোর জন্য।​
Please, Log in or Register to view URLs content!
- প্রচ্ছদ (স্ক্যান টেইলরের আউট-পুট ফাইল) আর টুকটাক কিছু এডিট করতে যা স্ক্যান টেইলরে করা যায় না।​
Please, Log in or Register to view URLs content!
- ফটোশপের বদলে মাঝে মাঝে এটাতে একই কাজ করি। এর
Please, Log in or Register to view URLs content!
নামে একটা অ্যাড-অন আছে যা দিয়ে বাল্ক প্রসেস যেমন অনেকগুলো ইমেজ রিসাইজ ইত্যাদিও করা যায়।​
Please, Log in or Register to view URLs content!
- স্ক্যান টেইলরের তৈরি হওয়া TIFF ফাইলগুলো জোড়া দিয়ে পিডিএফ বানানোর জন্য। এছাড়াও পিডিএফ কম্প্রেস করতে, পিডিএফ থেকে ইমেজ বানানো সহ টুকটাক পিডিএফ এডিটও করি এটাতে।​


ওসিআর ও ইপাবঃ
Please, Log in or Register to view URLs content!
Please, Log in or Register to view URLs content!
- গুগোল ড্রাইভে পিডিএফ আপলোড করে গুগোল ডকসে ওপেন করলে লেখাগুলো টেক্সট হিসেবেই পাওয়া যায়। এভাবে অবশ্য ২ মেগাবাইটের থেকে বড় ফাইল হলে কাজ হয় না, তাই বড় ফাইল হলে ভেঙে নিতে হয়।​
Please, Log in or Register to view URLs content!
- টেক্সট থেকে ইপাব বানাতে এটা ব্যবহার করি। অনেক অপশন আছে এটাতে। নিজের মত করে সাজানো যায় ইপাব টাকে।​
Please, Log in or Register to view URLs content!
- ইপাব ফাইল কনভার্ট করতে, এছাড়া পিসিতে পড়তেও ব্যবহার করি।​


কমিক্স অনুবাদঃ
Please, Log in or Register to view URLs content!
- মোছামুছি করতেই মূলত ব্যবহার করি, Eraser আর Clone এই দুইটা টুলই প্রধানত কাজে লাগে বেশি।​
Please, Log in or Register to view URLs content!
- ডায়ালগ বসাতে ব্যবহার করি।​

ব্যবহার করা কিছু সফটওয়্যার ও ওয়েবসাইটঃ
Please, Log in or Register to view URLs content!
- পোস্টের জন্য কোলাজ বানাতে ব্যবহার করি।​
Please, Log in or Register to view URLs content!
ইমেজ শেয়ারিং জন্য বর্তমানে এটাই ব্যবহার করি।​
Please, Log in or Register to view URLs content!
- আগে এটার মাধ্যমে ইমেজ শেয়ার করতাম। তবে এত বেশি অটো ডিলিট আর সার্ভার ডাউন থাকে যে এখন বাদ দিয়েছি।​
Please, Log in or Register to view URLs content!
- স্ক্রিনশট নিতে ব্যবহার করি।​
Please, Log in or Register to view URLs content!
- খুব দ্রুত ছোটখাট এডিট করি। সামান্য কাজগুলো করতে আসলে এত অল্প সময়ই লাগে যে ফটোশপ ওপেন হতে যে সময় লাগে তার মধ্যেই এটাতে করা হয়ে যায়।​
Please, Log in or Register to view URLs content!
- ১/২টা png ফাইল কম্প্রেস করতে ব্যবহার করতাম আগে (মূলত পোস্টের ইমেজ কম্প্রেস করতে)।
Please, Log in or Register to view URLs content!
-১/২টা jpg ফাইল কম্প্রেস করতে ব্যবহার করতাম আগে (মূলত পোস্টের ইমেজ কম্প্রেস করতে)।
Please, Log in or Register to view URLs content!
- এটাতে আগে ইমেজ রিসাইজ করতাম।
Please, Log in or Register to view URLs content!
- বিভিন্ন ফাইল কনভার্ট করতাম আগে এটাতে।
Please, Log in or Register to view URLs content!
- অনেক সময় svg ফাইল নিয়ে কাজ করতে এটা কাজে আসে।
 
Last edited:

Hasan1991

Member
Top Poster Of Month
Dec 21, 2016
738
3,481
Credits
12,934
চিরন্তন ও ধ্রুব সত্য হল, জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা ছড়িয়ে দিলে সেটা আরও পাকাপোক্ত হয়। এই বিনিময় প্রক্রিয়ায় যিনি যে বিষয়টা নিয়ে আলোকপাত করেন, তিনি সেই বিষয়ে আরও ঋদ্ধ হন। অপরদিকে যিনি বিষয়টা জানতে পারেন তিনি জানার দিক থেকে পূর্বের তুলনায় সমৃদ্ধ হন। এই যে প্রতিদিন এই প্ল্যাটফর্মে এত জাঁকজমক, চমৎকার, নজরকাড়া, আকর্ষণীয় ও নিত্য-নতুন চাকচিক্য এবং জ্ঞান আহরণের প্রিয় বন্ধু বিভিন্ন বইয়ের যে আনাগোনা হয়, তার পেছনের গল্প ঠিক কয়জনই বা জানি। যারা অত্যন্ত ধৈর্য, শ্রম, নিষ্ঠা ও নিজের প্যাশনের জায়গা থেকে বইগুলো আপলোড করেন, সে গল্পগুলোর যাত্রাপথ সম্পর্কে একটা কৌতুহল সুদীর্ঘ সময় থেকেই জিইয়ে রেখেছিলাম। তার ছিটেফোঁটা বিক্ষিপ্তভাবে বিভিন্ন সময়ে জানার কিঞ্চিৎ সুযোগ হলেও বিশদ জানার ক্ষেত্র তেমনভাবে ছিল না। অনেকটা সময় নিয়ে সাদেক ভাইয়ের করা আজকের পোস্ট থেকে অন্তরালের প্রেক্ষাপটগুলো জানার একটা সুযোগ হয়ে গেলো আজ। একটা বই আপলোডের পিছনে আপলোডারদের যে কি পরিমাণ সময়, টেকনিক, টুলসসহ নানান সরঞ্জামাদি, উপকরণ ও কৌশল অবলম্বন ও কষ্ট করতে হয়, সেটা বেশ ভালোভাবেই অবগত হলাম। পছন্দের প্ল্যাটফর্মে আপনাদের মতো উৎসর্গীকৃ্ত মানুষগুলোর সম্মিলিত প্রচেষ্টার ফলে বাংলাপিডিএফ এখনও নেটিজেনদের দুনিয়ায় পিডিএফ পড়ার সবচাইতে শ্রেষ্ঠ প্ল্যাটফর্ম। আপনিসহ অন্যান্য আপলোডারদের এই প্রচেষ্টা ও সময় বিনিয়োগের মূল্যায়ন একজন ক্ষুদ্র পাঠক হিসেবে কতটুকু করতে পারলাম, ঠিক জানি না। তবে এর জন্য সমস্ত আপলোডারদের নিকট অত্যন্ত কৃ্তজ্ঞ। ধন্যবাদ এক্ষেত্রে ছোট হয়ে যায়। অনেক অনেক ভালো থাকবেন আর আমাদের এরকম বই ভিন্ন আঙ্গিকের বই উপহার দিয়ে সর্বদা পাশে থাকবেন। শুভকামনা সবসময়।
 
Last edited:

Dr.star

New Member
May 5, 2021
326
1,039
24
Faridpur, Dhaka, bangladesh
Credits
8,997
অনেক দরকারী বিষয় সম্পর্কে জানতে পারলাম ভাই। আর বোনাস হিসেবে জানলাম আপনার বাংলাপিডিএফ এ আসার গল্প।
তিন গোয়েন্দার প্রথম দিকের কিছু বই এর ইপাব বানাবো বলে প্রুফ রিডিং করেছি কিন্তু পরে আর বানানো হয়নি। ইপাব বানানো যে কতটা সময় সাপেক্ষ সেটা আমার জানা আছে ভাই। আর আজ আপনার কাছ থেকে জানলাম পিডিএফ তৈরির খুটিনাটি। যদি কখনো বিডিএফ বানাই আপনার এই দিক নির্দেশনা গুলো মনে রেখেই এগুবো।
ইপাব বানানোর জন্যে ওসিয়ার করার দরকার পড়ে, আর ওসিয়ার করার জন্যে গুগল ড্রাইভের পরিবর্তে goocr (গো ওসিয়ার) ব্যাবহার করা জায়। আমি বেশিরভাগ সময়ই এটা ব্যাবহার করেছি। আমার কাছে ভালই লেগেছে। গুগলে সার্চ করলেই goocr এর ওয়েবসাইট পেয়ে যাবেন। এটি একটি অনলাইন ইমেজ টু টেক্সট কনভার্টার।
 

ruhan123

Phoenix
Uploader
Premium Member
Jan 21, 2019
554
10,052
Credits
9,648
ভাইয়া, আপনার কথা আমার মনে আছে খুব ভালোভাবে।আমার প্রথমদিকের পিডিএফ বানাতে অনেক হেল্প করেছিলেন।আমি তখন অনেক অপটু ছিলাম।"আপুলিয়াসের আশ্চর্য অভিযান" ছিলো ফাস্ট বই,বাট অনেক খারাপ হয়েছিলো পিডিএফটা। এরপরের বই "ব্যারন মুনশাউজেনের আশ্চর্য অভিযান" চেয়েছিলাম বেটার করতে। তাই আপনাকে পিকগুলো তুলে সেন্ড করেছিলাম,,, আপনি পিডিএফ ক্রিয়েট করে দিয়েছিলেন(এখনো পোস্টে উল্লেখ আছে।ওই বইটার কল্যানেই লাইফের সেরা বন্ধু পেয়েছিলাম,যদিও নিজের ভুলের কারনেই আবার হারিয়ে ফেলেছি :))
এরপর তো অনেক পরিবর্তন হলো, আপনারও অনেক ভালো ভালো বই পেলাম,নিজেও আপগ্রেড হলাম ধীরে ধীরে।
এখনো যেনো মনেহয় ওইসব তো মাত্র কয়দিন আগে হলো,সব স্পষ্ট মনে পড়তে থাকে।সময় কত দ্রুত চলে যায়!!!
আমার গল্পটা নাহয় আরেকদিন বলবো।কীভাবে পিফিএফ বানাতে শুরু করলাম,কেনো শুরু রলাম, আগে কীভাবে পিডিএফ বানাতাম,এখন কীভাবে বানাই,কোন সফটয়্যার ইউজ করি,এসব ডিটেইলস জানাবো।
যাইহোক, সেই সময়ের পরও বাংলাপিডিএফ আরো চেঞ্জ হয়েছে।চেঞ্জ হয়ে হয়ে আজকের বাংলাপিডিএফ এ দাডিয়েছে। অবশ্য এই দুই বছরে অনেক ভাল ভালো আপলোডারকে হারিয়ে যেতে দেখলাম,তবে আবার গত বছর থেকে অনেক নতুন নতুন আপলোডারও পেয়েছি, আজিজ ভাই,আইসু ভাই,আরো অনেকে,,,,
এখন এই সাইটটা আমার কাছে অক্সিজেনের মত। এই সাইট কোনোদিন গায়েব হয়ে গেলে আমার কী হবে আমি জানিনা। :)
 

Suny13

Magazine Lover
Moderator
Uploader
Jun 8, 2015
337
6,302
29
Dhaka
Credits
13,866
মনে পড়ে গেল রঙ্গিন দিনের কথা। খুব নেশা ছিল pdf বই নিয়ে। শুধু মাত্র pdf পড়া জন্য টাচ ফোন কিনেছিলাম। তার পর pdf বানাবার জন্য ল্যাপটপ ও স্ক্যানার কিনলাম। pdf বানালাম, একটা ওয়েবসাইট কিনেছিলাম।

তারপরে একদিন ল্যাপটপ চুরি হয়ে গেল, pdf বানাতে হতাশ হয়ে গেলাম।

ল্যাপটপে 150 gb উপরে স্ক্যান করা বই ছিল। এর বেশির ভাগই ছিল ম্যাগাজিন। বিজ্ঞান চিন্তা, কিশোর আলো, কিশোর কণ্ঠ, উন্মাদ, ব্যাপন, পাই জিরো টু ইনফিনিট, কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স, রহস্য পত্রিকা ইত্যাদি স্ক্যান করা ছিল।

যাই হোক শুভ কামনা সবার জন্য।
ধন্যবাদ পোস্ট এর জন্য।
 

Aishu Rehman

The D. Alvarez
Uploader
Premium Member
Jul 23, 2018
563
7,257
25
Bangladesh
Credits
58,212
দারুণ অভিজ্ঞতার কথা বললেন ভাই। পিডিএফ পড়ার জগতে অনেক পুরোনো হলেও তৈরি করার জগতে কয়েক মাস হলো প্রবেশ করেছি মাত্র। আর এই কয়েকমাসেই অনেক কিছু শিখেছি। ইম্প্রুভ ও করেছি যথেষ্ট। কিন্তু এখনও একটা সমস্যা নিয়ে ভুগি প্রতিনিয়ত। আর তা হলো পিডিএফের সাইজ। ২০০-৩০০ পাতার একটা বইয়ের সাইজ দাড়াই প্রায় ১০০এম বির মতোন। পিডিএফটি কম্প্রেস করলে ৭০ এম বির নিচে নামানো যায় তবে কোয়ালিটির তখন দফারফা অবস্থা হয়ে যায়। আমি মুলত ফোনেই সব কাজ করি। এক্ষেত্রে সাইজ কমানোর জন্য কি কোন পন্থা আছে? আপনার এডোব অ্যক্রব্যাট এডিটর কি ফোনে ব্যবহার করা যাবে?
 

sadaq

Moderator
Staff member
Moderator
Uploader
Premium Member
Sep 16, 2013
785
12,547
বাংলাদেশ
sadaqurrahman.com
Credits
39,249
Please, Log in or Register to view quote content!
মোবাইলে এখনো প্রসেস করার কোন উপায় জানা নেই। আপনার ব্যবহার করা সফটওয়্যারগুলোর নামও এখানে শেয়ার করলে ভালো হত।

স্ক্যান করার পর স্ক্যান টেইলরে যখন প্রসেস করি আসলে তখনই শুধু টেক্সট আছে যেসব পাতার সেগুলোর সাইজ অনেক কমে যায়
 

safa abc

New Member
Mar 1, 2016
183
493
Credits
5,038
হার্ডকপি হতে সফট কপি বানানো যে কি পরিমাণ শ্রমসাধ্য ব্যাপার - সেটি যিনি নিজ হাতে করবেন না তিনি কখনোই বুঝবেন নাহ! আজকাল ব্যাপার টা এমন হয়ে দাড়িয়েছে - ফ্রি তে সফটকপি পেলেই যত্রতত্র কোনোওরূপ শেয়ার ক্রেডিট / সম্মাননা ছাড়াই দেওয়া হয়, যেন এটি ২ সেকেন্ডে করা হয়েছে কোনোরূপ কষ্ট হয় নি, কোনো শ্রম ব্যয় হয় নি।

আপনার এই লেখনির মাধ্যমে অনেকেরই ভুল ভাংতে বাধ্য হবে! এজন্যে আপনাকে শ্রদ্ধা ও সালাম।
 

Aishu Rehman

The D. Alvarez
Uploader
Premium Member
Jul 23, 2018
563
7,257
25
Bangladesh
Credits
58,212
আমি মূলত দুটো সফটওয়্যার দিয়েই কাজ শেষ করি। প্রথমত, Vflat. এটার বিশেষ সুবিধা পৃষ্ঠা গুলো কার্ভ বা বাকা থাকলেও সেগুলো দিব্যি সোজা করে ফেলে। এমনকি দুটো পাতা একসাথে করলেও ঠিকই একদম ফ্লাট বা সোজা সুন্দর করে ফেলে। স্ক্যানের এই সুবিধাটাই আমার কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। এর সাথে পৃষ্ঠাগুলোর ছবি কাপাকাপি ছাড়াই তোলার জন্য একটা স্টান্ড ব্যাবহার। ফলে স্ক্যানের প্রথম ধাপ বেশ সুন্দর ভাবেই সম্পন্ন করি।

দ্বিতীয় ধাপ, ইডিট। এটার জন্য Vflat থেকে সরাসরি CamScanner এ শেয়ার করি। সেখানে প্রয়োজনীয় সকল টুলস আছে। যেমন ফিঙ্গার বা অবাঞ্ছিত দাগ দূর করা, পৃষ্ঠা গুলো আরো বেশি সোজা করা. এবং auto correction অপশনের মাধ্যমে লেখাগুলো সোজা করা ।

কাজটা বেশ সহজ কিন্তু একটু সময় সাপেক্ষ এবং প্রত্যেকটা পাতা ধরে ধরে ইডিট করাও বেশ কষ্টসাধ্য। কিন্তু সমস্যা একটাই পিডিএফের কোয়ালিটি সুন্দর হলেও সাইজ অনেক বেড়ে যায়।
 

suvom

Western Lover
Staff member
Moderator
Uploader
Mar 16, 2013
496
312,648
Sylhet
Credits
16,968
আমি আর কি বলব। এগিয়ে যাক বাংলাপিডিএফ। অবসরের সময় হয়ে গেছে.........

প্লেনের গতিতে এগিয়ে যান @sadaq ভাই। বেস্ট অফ লাক।
 

remash

Variation Lover
Staff member
Moderator
Uploader
Premium Member
Sep 17, 2014
745
45,070
Gazipur
Credits
16,240
Please, Log in or Register to view quote content!
ভাই, অবশ্যই বলতে হবে। আপনাদের গল্প সবার জানা দরকার। আপনাদের দেখানো পথেই আমরা নিজেদের কিছুটা সমৃদ্ধ করতে পেরেছি। পিডিএফ তৈরিতে আপনি আমাকে যে সাপোর্ট দিয়েছেন, তা সারাজীবন মনে থাকবে।
একটাই আক্ষেপ, ফটোশপে কভার এডিট করা এখনো শিখতে পারলাম না।
 

world

বই পোকা
Donor
Oct 10, 2013
111
1,601
Credits
12,351
ক্যানন স্ক্যানার কেনাই হয়েছে স্ক্যান করে পিডিএফ বানিয়ে শেয়ার করার জন্য। স্ক্যান করার পর প্রতিটা পৃষ্টা ধরে ধরে এডিট করা অবশ্যই শ্রমসাধ্য ও সময়সাপেক্ষ। সবাইকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ এই শ্রম দেওয়ার জন্য।
 

BGsc202

New Member
Jul 14, 2018
73
1,068
Credits
20,837
আমার কাছে কিছু পীডীএফ আছে জলছাপ যুক্ত, সেগুলোকে এডিট করতেে কোন সফটওয়ার ব্যাবহার করবো? আমি একেবারেই নবীশ এই বিষয়ে। ধন্যবাদ।
 

MdShaifulislam

New Member
Mar 16, 2019
16
51
Credits
3,351
দারুন একটা পোষ্ট। চমৎকার লেগেছে। অনেক কিছু শিখতে পেরেছি। বিশেষ করে গুগল ড্রাইভে পিডিএফ রেখে ঘুরপথে ওসিআর করার পদ্ধতিটা যুৎসই।
 

Bivas Chakma

New Member
Nov 23, 2015
277
3,391
Credits
5,540
বই আপলোড সম্পর্কে সম্পূর্ণ একটি টিউটোরিয়ালের মত এই পোস্ট। নিঃসন্দেহে অনেক কিছু শেখার আছে এখান থেকে। যারা নতুন আপলোডার তাদের জন্য এই পোস্ট খুবই কাজের হবে। অসংখ্য ধন্যবাদ।
 

sadaq

Moderator
Staff member
Moderator
Uploader
Premium Member
Sep 16, 2013
785
12,547
বাংলাদেশ
sadaqurrahman.com
Credits
39,249
Please, Log in or Register to view quote content!
জলছাপের ধরন আর ফাইলের সিকিউরিটির উপর নির্ভর করবে এডিট করা সম্ভব কিনা সেই বিষয়টি। তারপরে এডিট করার ব্যাপার আসবে।
 

Achena Boipoka

IT Professional from India
Uploader
Premium Member
Jan 14, 2019
271
9,485
Credits
45,132
হেডপিস বানানো আমার একটি শখ বলতে পারেন, কোনো প্রথাগত শিক্ষা এ ব্যাপারে আমার নেই, ইন্টারনেটের বিভিন্ন টিউটোরিয়াল এবং নির্দিষ্ট কিছু সফটওয়ার এর পিডিএফ গাইড পড়ে আমি অনবরত শেখার চেষ্টা করি । এই বইটি যেদিন আমি পোস্ট করি, সেদিনের হেডপিসে এই এনিমেশনটি ছিল না, পরে শুধু মাত্র ওই এনিমেশনটি add করে হেডপিসটি রি-পোস্ট করি। আর এটিই আমার এই ধরনের প্রথম প্রচেষ্টা ।

চেষ্টা করছি খানিকটা বোঝানোর এই ব্যাপারে,

হেডপিস খুব ভালো করে দেখলে বুঝবেন অনেকগুলো ছবির সমষ্টি হেডপিস টি। ডানদিকে কঙ্কাল, বামদিকে চাঁদ, স্থির বাদুড়, মাকড়সার জাল ও নিচের দিকে কাঠের বেড়া এবং সবশেষে বাংলায় লেখা কিছু অক্ষর বিন্যাস । এই সমস্ত ছবি ও অক্ষরগুলোকে আমি পাঁচ টি আলাদা আলাদা সফটওয়্যার দিয়ে প্রসেস করেছি (একটা সফটওয়্যার [ফটোশপ অথবা গিম্প] দিয়েও সম্ভব, কিন্তু আমার সীমিত জ্ঞানের কারণে আমাকে বিভিন্ন আলাদা আলাদা সফটওয়্যার এর সাহায্য নিতে হয়েছে) ।

সফটওয়্যার এর তালিকা :

(১) এডব ফটোশপ এস ৪.০
(২) এসিডি সি ভার্সন ৮ প্রো
(৩) গিম্প (GIMP)
(৪) এক্স এন ভিউ ক্লাসিক (XnView)
(৫) পিকসমস টুল (Picosmos)

শেষ তিনটি সফটওয়্যার (ক্রমাঙ্ক ৩ থেকে ৫) ফ্রি ওয়ার / ওপেন সোর্স, আপনি ডাউনলোড করে নিতে পারেন কোনো লাইসেন্স পারচেজ না করেই । আর প্রথম দুটি বিশ্বখ্যাত ও বহুল ব্যবহৃত বলে ও ব্যাপারে আর আলাদা করে কিছু বলার স্পর্ধা আমার নেই ।

এই ৫টি সফটওয়্যার -এর যে আউটপুট সেটি নিচে থাকলো আপনার বোঝার সুবিধার জন্য, যেটি আপনি দেখেন নি, কারণ এই পোস্ট থেকে সেই ইমেজটি আমি ডিলিট করে দিয়েছি (লক্ষ্য করে দেখুন, এই হেডপিসে এনিমেশনটি নেই) :




এর পরবর্তী ধাপ হলো এই ইমেজের সাথে এনিমেশনটি (এই ক্ষেত্রে উড়ন্ত বাদুর) কিভাবে যোগ করা হলো;



প্রথমেই আমি ইন্টারনেট থেকে এই নির্দিষ্ট এনিমেশনটি (GIF ফরম্যাট) খুঁজে বের করি, লিংক নিচে রইলো আপনার দেখে নেবার জন্য

Please, Log in or Register to view URLs content!


পরবর্তী কাজ হলো, প্রথম হেডপিসে এই ডাউনলোড করা GIF ফাইলটি নির্দিষ্ট জায়গায় জুড়ে দেওয়া, এই কাজের জন্য সাহায্য নিয়েছিলাম আরেক ওপেন সোর্স অনলাইন পোর্টালের, ফটোপিয়া.কম, এই পোর্টালে আপনি বিনামূল্যে যতখুশি ফটো এডিটিং এর কাজ করতে পারেন, কোনো বিধিনিষেধ নেই, নিচে পোর্টাল এর লিংক দিলাম,

Please, Log in or Register to view URLs content!


এই ফটোপিয়া.কম দিয়ে যে আউটপুট সেটি এই মুহুর্তে আপনি হেড পিসে দেখতে পারছেন, তবুও আরেকবার ওটি নিচে দিলাম, যাতে পার্থক্য়টি সুস্পস্ট হয়,




জানিনা কতটুকু আপনাকে বোঝাতে পেরেছি, কারণ আমি নিজেই এই বিষয়ে শিক্ষানবিস, ভালো থাকবেন, শুভেচ্ছা রইলো :Bp Fast 04: HAPPY READING
 
  • Like
Reactions: sadaq

Reyad Sarwer Rafi

New Member
Dec 25, 2017
63
870
20
Tongi
Credits
5,984

Please, Log in or Register to view quote content!
আচ্ছা ভাই vflat আমি নামিয়েছি। কিন্তু এটা আগের থেকেই pdf থাকা কোনো ফাইল এডিট করা যায় না। camscanner ছাড়া অন্য কোনো apk এর নাম জানেন যেটা দিয়ে curbe ঠিক করা যায়?
 

sadaq

Moderator
Staff member
Moderator
Uploader
Premium Member
Sep 16, 2013
785
12,547
বাংলাদেশ
sadaqurrahman.com
Credits
39,249
Please, Log in or Register to view quote content!
vflat দারুণ কাজের জিনিস দেখছি, আমার একটা বই নিজের জন্য স্ক্যান করা দরকার। স্ক্যানারে করা যাবে না, আবার আঁকাবাঁকা ঠিক করার জন্য বেশি সময়ও দিতে পারা যাবে না। vflat কিছুক্ষণ ব্যবহার করে মনে হচ্ছে এটা দিয়ে আমার কাজ হয়ে যাবে। দারুণ জিনিসটা শেয়ার করার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ!
 

কমেন্ট করার আগে নিম্মোক্ত বিষয়গুলো দেখে নিনঃ

  • বাংলিশ কমেন্ট করা যাবে না।
  • ক্রেডিট নিয়ে কোন কমেন্ট করা যাবে না।
  • মিডিয়াফায়ার কাজ না করলে VPN অথবা Tor ব্যাবহার করুন।
  • একই ধরনের রিপ্লাই বার বার করলে ব্যান হবার সম্ভাবনা আছে।
  • লিঙ্ক কাজ না করলে, কমেন্ট না করে আপলোডারকে ম্যাসেজ দিন।